Smash – অনলাইন ফাইল শেয়ারিংয়ে সাইজ কোন ব্যাপারই না!

বড় ফাইল শেয়ার করা নিয়ে আর নয় দুশ্চিন্তা।
smash

Smash ইন্সটল থাকলে অনলাইন ফাইল শেয়ারিংয়ে সাইজ কোন ব্যাপারই না! কিন্তু কিভাবে? আমরা অনলাইনে আমাদের বন্ধু-বান্ধব বা অফিসের কলিগ অথবা অন্য কারোর সাথে বিভিন্ন ফাইল শেয়ার করি। সেজন্য আমরা বিভিন্ন ক্লাউড স্টোরেজ যেমন গুগল ড্রাইভ বা ড্রপবক্স ইত্যাদি ব্যবহার করি যেগুলোর একটা নির্দিষ্ট পরিমান ফ্রি স্টোরেজ থাকে। কিন্তু এমন যদি হয় আপনার ফাইলের সাইজ ক্লাউড স্টোরেজের ফ্রি স্টোরেজ থেকে অনেক বেশি!

তাই আপনি যদি Smash অ্যাপটি ব্যবহার করেন তাহলে অনলাইন ফাইল শেয়ারিংয়ে সাইজ কোন ব্যাপারই না। কেননা Smash অ্যাপটির সাহায্যে আপনি যেকোন সাইজের ফাইল যে কাউকে যখন ইচ্ছা অনলাইনে শেয়ার করতে পারবেন।

সুবিধা ও অসুবিধা

সুবিধা

  • সাইনআপ বা লগিন এর কোনো ঝামেলা নেই।
  • যেকোন সাইজের ফাইল আপলোড করা যায় এবং আপলোড শেষ হবার সাথে সাথে শেয়ার লিংক পেয়ে যাবেন।
  • আপনার ফাইলটি সম্পূর্ন এনক্রিপটেড অবস্থায় স্টোর এবং ট্রান্সফার করা হয়। তাই সিকিউরিটি নিয়ে চিন্তা না করলেও হবে।
  • কোনো রকম অ্যাড ব্যবহার করা হয়নি।
  • সম্পূর্ন নিট এন্ড ক্লিন ডিজাইন।
  • আপনি অ্যাপটিকে কম্পিউটার বা ল্যাপটপেও ব্রাউজারের মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন। লিংক: Smash

অসুবিধা

  • আপনার ফাইলের সাইজ বড় হলে সেটা ডাউনলোডের উপযুক্ত হতে একটু সময় নিবে। আমি ৪ জিবির একটা ফাইল আমার বন্ধু সাথে শেয়ার করেছিলাম এবং আমার বন্ধু ৪০ মিনিট পর ফাইলটি ডাউনলোড করার অপশন পেয়েছিল।
  • আপনার আপলোড করা ফাইলটি ৭ দিনের জন্য স্টোর করে রাখা হয়। কম্পিউটারে ব্রাউজারের মাধ্যমে ব্যবহার করলে ১৪ দিন স্টোর করা হয় । এরপর অটোমেটিকভাবে ডিলিট হয়ে যাবে।

Smash ডাউনলোড এবং ইন্সটল

অ্যাপটি গুগল প্লেস্টোর থেকেই ডাউনলোড করতে পারবেন। আমি নিচে প্লেস্টোর লিংক দিয়ে দিলাম।

কিভাবে Smash ব্যবহার করবেন(ভিডিওসহ)

অ্যাপটি ব্যবহার করার জন্য আপনাকে কোনো রকম লগিন বা সাইনঅ্যাপ করার দরকার নেই।

  • শুধুমাত্র অ্যাপটি ইনস্টল করুন।
  • এরপর এটাকে ওপেন করে যে ফাইলটি শেয়ার করতে চান সেটা আপলোড করুন।
  • আপলোড শেষ হলেই আপনি একটি লিংক পেয়ে যাবেন।
  • যার সাথে ফাইলটি শেয়ার করতে চান তাকে লিংকটি পাঠিয়ে দিন। সে লিংক থেকে আপনার ফাইলটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবে। একদম সিম্পল।

Smash অ্যাপটি কেমন লেগেছে সেটা অবশ্যই কমেন্ট করে আমাদের জানিয়ে দিন। এরকম আরও অ্যাপ সম্পর্কে জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন। আমাদের সাপোর্ট করার জন্য আর্টিকেলটি শেয়ার করে দিন এবং সোশ্যাল প্লাটফর্মে ফলো করুন। টেকজাহাজের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

সাগর মজুমদার
খুব ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক যন্ত্রপাতি খুটিয়ে দেখার শখ ছিল। এর জন্য অনেক বকাও খেয়েছি কিন্তু খুটিয়ে দেখার আনন্দের কাছে এটা কিছুই ছিল না। এভাবে আস্তে আস্তে টেকনোলজির সাথে খুব ভাল একটা সম্পর্ক গড়ে উঠে আর এই সম্পর্ক থেকে যা পেয়েছি, সেটা দিয়েই পূর্ণ করতে চলেছি টেকজাহাজকে। আশা করি আপনি আমার পাশে থাকবেন।