কিভাবে কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তুলবেন কোনো সফটওয়্যার ছাড়াই!

take screenshot techjahaj

বেশিরভাগ সময় আমরা স্মার্টফোনেই স্ক্রিনশট তুলে থাকি । তবে মাঝে মাঝে আমাদের কম্পিউটারেরও স্ক্রিনশট তুলতে হয়। এজন্য হয়ত আমরা বিভিন্ন থার্ড পার্টি সফটওয়্যার ইন্সটল করি। কিন্তু কোনো সফটওয়্যার ইন্সটল না করেও আমরা স্ক্রিনশট তুলতে পারি। তাই আর্টিকেলটিতে আমরা দেখবো কিভাবে কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা যায় কোনো সফটওয়্যার ছাড়াই!

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলার নিয়ম

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট আমরা ২ ভাবে তুলতে পারি-

  • কী-বোর্ড শর্টকার্ট
  • কম্পিউটারে ডিফল্ট ইন্সটল থাকা সফটওয়্যার

কী-বোর্ড শর্টকার্ট

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা
কী-বোর্ডে Print Screen/sys Rq বাটন

আপনি দেখবেন আপনার কী-বোর্ডে একটি কী/বাটন রয়েছে যেটার উপরে Print Screen/sys Rq লেখা আছে। ডেস্কটপ এবং ল্যাপটপের কী-বোর্ড লেআউট একটু আলাদা হয়ে থাকে। তাই বাটনটির পজিশন এবং নাম আপনার কী-বোর্ডে একটু আলাদা হয়ে থাকতে পারে।আমরা মূলত কী-বোর্ডের এই কী/বাটন টার সাহায্যে কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তুলবো। তবে এই বাটনটি ব্যবহার করে আমরা ৩টি পদ্ধতিতে স্ক্রিনশট তুলতে পারি।

প্রথম পদ্ধতি

আপনি যদি Print Screen/sys Rq বাটনটি চাপেন তাহলে তক্ষনাৎ আপনার কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা হয়ে যাবে। কিন্তু কম্পিউটার স্ক্রিনে আপনি যেমন কোনোরকম পরিবর্তন দেখতে পাবেন না তেমন এই স্ক্রিনশটটি আপনি কোথায়ও সেভ পাবেন না। তবে আপনি যখন কম্পিউটারে ডিফল্ট ইন্সটল থাকা Paint সফটওয়্যারটি ওপেন করে সেখানে Ctrl+V টাইপ করবেন তখন দেখবেন আপনার তোলা সেই স্ক্রিনশটটি সেখানে চলে এসেছে। এখন Paint সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে আপনার স্ক্রিনশটকে আপনি নিজের ইচ্ছামতো কাস্টোমাইজ করতে পারবেন।

আপনি হয়ত এখন জিজ্ঞেস করবেন, Ctrl+V টাইপ করে মূলত আমরা কোনোকিছু কপি করলে সেটা পেস্ট করার জন্য ব্যবহার করি। তাহলে আমাদের তোলা স্ক্রিনশটটি এজন্যই সেভ না হয়ে এত্তোক্ষন শুধু কপি হয়ে ছিল?

হ্যা, আপনি ঠিকই ধরেছেন। যখন Print Screen/sys Rq বাটনটি আপনি চেপেছিলেন তখন আপনার কম্পিউটারের স্ক্রিনে থাকা সকল কিছু ছবি ফরমেটে ক্লিপবোর্ডে সেভ হয়ে ছিল যেমনটি আমরা কোনো লেখা কপি করলে সেটা ক্লিপবোর্ডে সেভ থাকে। তাই যেখানে ইমেজ নিয়ে কাজ করা হয় এমন যেকোন সফটওয়্যার যেমন অ্যাডোব ফটোশপ অথবা ওয়েব অ্যাপলিকেশন যেমন জিমেইল/ ফেসবুকে কিছু লেখার সময় বা চ্যাটবক্সে পেস্ট অর্থাৎ Ctrl+V টাইপ করলে দেখবেন স্ক্রিনশটটি সেখানে চলে আসবে।

দ্বিতীয় পদ্ধতি

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা
win + Print Screen/sys Rq

এবার Print Screen/sys Rq বাটনটির সাথে উইন্ডোজ বাটনটিও যদি একসাথে চাপেন ( win + Print Screen/sys Rq) তাহলে দেখবেন আপনার কম্পিউটার স্ক্রিনের ব্রাইটনেস কিছুসময়ের জন্য কমে গিয়ে আবার নরমাল অবস্থায় চলে আসবে যেটা ইঙ্গিত করে একটি স্ক্রিনশট তোলা হয়েছে।

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা
My Computer/This Pc এর Picture ফোল্ডার

এবার কম্পিউটারের My Computer/This Pc এর Picture ফোল্ডারে গেলেই Screenshot নামে একটি ফোল্ডার পাবেন যেখানে আপনার তোলা সকল স্ক্রিনশট রয়েছে। স্ক্রিনশটগুলোকে কাস্টোমাইজ করার জন্য Paint বা যেকোন ইমেজ ইডিটর ব্যবহার করতে পারেন।

তৃতীয় পদ্ধতি(নির্দিষ্ট উইন্ডোর স্ক্রিনশট)

এতক্ষন আমরা যে স্ক্রিনশটগুলো তুলেছি সেগুলো কম্পিউটারের স্ক্রিনে থাকা সকল কিছুর স্ক্রিনশট তুলেছে। ধরুন এবার কম্পিউটার স্ক্রিনে একটি নোটপ্যাড ওপেন আছে এবং সাথে আপনার ফেসবুক চ্যাটবক্স ওপেন আছে। আপনি নিশ্চই স্ক্রিনশটে ফেসবুক চ্যাটবক্স দেখাতে চাইবেন না। তাই উপরের দুটি পদ্ধতি অবলম্বন করে স্ক্রিনশট তুলতে হলে আপনাকে ফেসবুক চ্যাটবক্স মিনিমাইজ করতে হবে।

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা
Alt + Print Screen/sys Rq

কিন্তু ফেসবুক চ্যাটবক্স মিনিমাইজ না করে মাউস দিয়ে নোটপ্যাডটি সিলেক্ট করে আপনি যদি Print Screen/sys Rq বাটনটির সাথে Alt বাটন একসাথে চাপেন ( Alt + Print Screen/sys Rq) তাহলে যে উইন্ডো আপনি সিলেক্ট করে রেখেছিলেন সেটাই শুধু প্রথম পদ্ধতির মতো ক্লিপবোর্ডে কপি হয়ে থাকবে। অর্থাৎ শুধুমাত্র নোটপ্যাডের স্ক্রিনশট তোলা হবে। এবার যেকোন ইমেজ ইডিটর বা paint সফটওয়্যারটিতে Ctrl+V টাইপ করলে নোটপ্যাডের স্ক্রিনশটটি দেখা যাবে।

কম্পিউটারে ডিফল্ট ইন্সটল থাকা সফটওয়্যার

কী-বোর্ড শর্টকার্টের মাধ্যমে আমরা যে স্ক্রিনশটগুলো তুলেছিলাম সেগুলোকে কাস্টোমাইজ করার জন্য আমাদের ইমেজ ইডিটর যেমন Paint সফটওয়্যারটির সাহায্য নিতে হয়েছিল। কিন্তু কম্পিউটারে দুটি ডিফল্ট সফটওয়্যার রয়েছে যেগুলো দিয়ে স্ক্রিনশট তোলার সাথে সাথে কাস্টোমাইজও করা যায়। সফটওয়্যার দুটি হলো-

  • Snipping Tool
  • Snip and Sketch

কম্পিউটারের সার্চ অপশনে সফটওয়্যার দুটির নাম লিখে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন। যারা উইন্ডোজ ৭,৮ বা এর আগের ভার্সনগুলো ব্যবহার করেন তারা Snip and Sketch সফটওয়্যারটি না পেলেও Snipping Tool পেয়ে যাবেন।

Snipping Tool

সফটওয়্যারটি ওপেন করলে নিচের ইমেজের মতো একটি উইন্ডো দেখতে পাবেন। প্রথমেই রয়েছে New অপশন। এটাতে ক্লিক করে আপনাকে স্ক্রিনশট তুলতে হবে। তবে New তে ক্লিক করার আগে Mode অপশনটি ক্লিক করে আপনি কিরকম ভাবে স্ক্রিনশট তুলতে চান সেটা সিলেক্ট করে দিতে পারবেন।

কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তোলা
Snipping Tool

Mode অপশনের আবার চারটি অপশন রয়েছে –

  • Free-form Snip ( নিজের ইচ্ছামতো এরিয়া সিলেক্ট করে স্ক্রিনশট তুলতে পারবেন )
  • Rectangular Snip ( চতুর্ভুজ আকারে নিজের ইচ্ছামতো যেকোনো এরিয়ার স্ক্রিনশট তুলতে পারবেন )
  • Window Snip ( কী-বোর্ড শর্টকার্টের তৃতীয় পদ্ধতির মতো একটি নির্দিস্ট উইন্ডোকে সিলেক্ট করে সেটার স্ক্রিনশট তুলতে পারবেন )
  • Full Screen Snip ( অটোমেটিক পুরো স্ক্রিনের স্ক্রিনশট তুলে ফেলবে)

স্ক্রিনশট তোলা সম্পন্ন হবার সাথে সাথে আপনি সফটওয়্যারটিতে স্ক্রিনশটকে কাস্টোমাইজ করার অপশন পেয়ে যাবেন।

Snip and Sketch

Snipping Tool এর মতো এই সফটওয়্যারের কাজও সেইম। পার্থক্য শুধু ইউজার ইন্টারফেসে। সফটওয়্যারটি ওপেন করে আপনি বারে থাকা New তে ক্লিক করলেই স্ক্রিনের উপরে চারটি অপশন দেখতে পাবেন। এই চারটি অপশনের কাজ Snipping Tool এর Mode অপশনের চারটি অপশনেরর মতোই। যেকোন একটিকে সিলেক্ট করে স্ক্রিনশট তুললেই স্ক্রিনশট কাস্টোমাইজ করার সকল অপশন পেয়ে যাবেন।

বন্ধুরা এই ছিল কিভাবে আপনি থার্ড পার্টি সফটওয়্যার ইন্সটল করা ছাড়াই কম্পিউটারে স্ক্রিনশট তুলতে পারেন। আশা করি, আমি আপনাদের সকল কিছু সঠিকভাবে বোঝাতে পেরেছি। তারপরও সমস্যা হলে আপনি কমেন্ট করে জানাতে পারেন।


আর্টিকেলটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন এবং সোশ্যাল প্লাটফর্মে আমাদের ফলো করুনটেকজাহাজের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ 😊।

সাগর মজুমদার
খুব ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক যন্ত্রপাতি খুটিয়ে দেখার শখ ছিল। এর জন্য অনেক বকাও খেয়েছি কিন্তু খুটিয়ে দেখার আনন্দের কাছে এটা কিছুই ছিল না। এভাবে আস্তে আস্তে টেকনোলজির সাথে খুব ভাল একটা সম্পর্ক গড়ে উঠে আর এই সম্পর্ক থেকে যা পেয়েছি, সেটা দিয়েই পূর্ণ করতে চলেছি টেকজাহাজকে। আশা করি আপনি আমার পাশে থাকবেন।