বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী করবেন কিভাবে ?

বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী

আমরা যারা কম্পিউটার ব্যবহার করি তাদেরকে প্রায় সময়ই বিভিন্ন অপারেটিং সিস্টেম যেমন উইন্ডোজ সেটাপ দেবার দরকার পড়ে। আর উইন্ডোজ সেটাপ দেবার জন্য আমরা সাধারনত বিভিন্ন সিডি বা ডিভিডি ব্যবহার করি। তবে বর্তমানে অপারেটিং সিস্টেম সেটাপ দেবার জন্য সিডি বা ডিভিডি খুব কম লোকই ব্যবহার করে। সবাই এখন বুটেবল পেনড্রাইভ ব্যবহার করে।

এখন যাদের বুটেবল পেনড্রাইভ সম্পর্কে কোনো ধারনা নেই তারা হয়ত জিজ্ঞেস করতে পারেন “এটা কি কিনতে পাওয়া যায়?” তাই তাদেরকে বলছি বুটেবল পেনড্রাইভ মূলত আলাদা কোনো পেনড্রাইভ নয়, এটি নরমাল পেনড্রাইভ-ই যা আমরা দোকান থেকে সাধারনত কিনে থাকি। পার্থক্য হল যে আমরা কম্পিউটারের মাধ্যমে কিছু কোড লিখে বা সফটওয়্যার ব্যবহার করে পেনড্রাইভটিতে একটি আলাদা বুটেবল নামে শক্তি দিয়ে থাকি।

কিভাবে বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী করবেন?

বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী করার জন্য আমরা সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারি অথবা কম্পিউটারের CMD তে কিছু কোড লিখেও তৈরী করতে পারি। তবে সফটওয়্যার ব্যবহার করলে পেনড্রাইভকে  বুটেবল বানাতে সময় বেশি লাগে। তাই আমি কোড লিখেই তৈরী করাটা বেশি পছন্দ করি আর কোডটাও তেমন কঠিন কোনো কোড নয়। 

সফটওয়্যার ব্যবহার করে

আপনারা সফটওয়্যার ব্যবহার করতে চাইলে নিচে ক্লিক করে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী

CMD ব্যবহার করে

CMD তে কোড লিখে বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী করতে হলে আমাদের যে কাজগুলো করতে হবে সেগুলো আমি নিচে একে একে বর্ননা করেছি ঃ

প্রথমেই আমাদেরকে উইন্ডোজের Start এ ক্লিক করে Search বারে diskpart লিখে Search করলে নিচের ছবির মতো Diskpart পেয়ে যাব।

বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী

তারপর এটাকে ওপেন করলে আমরা নিচের ছবির মতো CMD – এর একটি উইন্ডো পেয়ে যাব। তারপর সেখানে আমাদের নিচের ছবির মতো কোডগুলো লিখতে হবে আর “Enter” চাপতে হবে। কোডগুলো আমি নিচে লিখে দিলাম।

১। list disk   (এটা লিখে “Enter” চাপলে আমাদের কম্পিউটারে যত ডিস্ক আছে সেগুলোর তালিকা দেখতে পারব। ডিস্কগুলোর সাইজ দেখে আমাদের পেনড্রাইভটি চিহ্নিত করতে হবে। আমার পেনড্রাইভটি যেহেতু ১৬ জিবি তাই এখানে আমার পেনড্রাইটি হল local disk 1)

২। select disk 1

৩। clean ( এটা লিখে “Enter” চাপলে আমাদের পেনড্রাইভে যত ডাটা বা ফাইল থাকবে সেগুলো মুছে যাবে। তাই অবশ্যই আগে থেকে প্রয়োজনীয় ডাটা বা ফাইলগুলোর ব্যাকঅ্যাপ রাখতে হবে)

৪। create partition primary

৫। select partition 1

৬। active

৭। format fs=ntfs quick

৮। assign

৯ । exit

বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী

এভাবে আমরা একটি বুটেবল পেনড্রাইভ তৈরী করে নিলাম। এখন আমরা এই বুটেবল পেনড্রাইভকে বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতে পারি। যদি উইন্ডোজ সেটাপ দেবার জন্য ব্যবহার করি তাহলে আমাদেরকে উইন্ডোজের iso ফরমেটের ফাইলকে winrar সফটওয়্যারটির মাধ্যমে পেনড্রাইভটিতে Extract করতে হবে। তাহলেই আমরা এই বুটেবল পেনড্রাইভ ব্যবহার করে আমাদের কম্পিউটারে উইন্ডোজ সেটাপ দিতে পারব।


আমরা এখন আর্টিকেলটির একদম শেষ প্রান্তে। আর্টিকেলটি নিয়ে আপনার কোনো মতামত থাকলে সেটা অবশ্যই কমেন্ট করে আমাদের জানিয়ে দিন। আমাদের সাপোর্ট করার জন্য আর্টিকেলটি শেয়ার করে দিন এবং আমাদের ইউটিউব চ্যানেল ‘TechJahaj‘ কে সাবস্ক্রাইব করুন। টেকজাহাজের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Featured Image Credit: Pixabay