হুয়াওয়ে গুগলের আরও দুটি সার্ভিস হারাতে চলেছে

হুয়াওয়ে

২০১৯ সালের মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যান হওয়ায় হুয়াওয়ে গুগলের সকল মোবাইল সার্ভিস যেমন প্লেস্টোর ব্যবহার করার পারমিশন হারিয়েছিল। কিন্তু তারপরও অনলাইন থেকে বিভিন্ন অ্যাপ ডাউনলোড করে হুয়াওয়ে স্মার্টফোনে ব্যবহার করা যেত। এর মধ্যে গুগলের নিজস্ব মোবাইল অ্যাপ গুগল ম্যাসেজেস এবং গুগল ডুও অন্যতম। তবে এবার থেকে এগুলোও বন্ধ হয়ে যাবে।

হুয়াওয়ে স্মার্টফোনে গুগলের সার্ভিস অফ

সাম্প্রতিক অ্যাপদুটির আপডেট ভার্সন বের করা হয় এবং এদের কোড দেখলে সেখানে দুটি স্ট্রিং কোড পাওয়া যায়। গুগল ম্যাসেজের স্ট্রিয়ে লেখা ছিল সকল আনসার্টিফাইড ডিভাইসে আগামী ৩১ মার্চ,২০২১ এর পর গুগল ম্যাসেজকে আর ব্যবহার করা যাবে না। অন্যদিকে গুগল ডুও এর স্ট্রিয়ে লেখা ছিল সকল আনসাপোর্টেড ডিভাইসে আগামী ৩১ মার্চ,২০২১ এর পর আর ব্যবহার করা যাবে না। তবে ব্যবহারকারীরা তাদের ডেটাগুলো ডাউনলোড করার জন্য গুগল ডুও এর ক্ষেত্রে আরও ১৪ দিন সময় পাবে।

হুয়াওয়ে
গুগল মেসেজ এবং গুগল ডুও

লক্ষ্য করার বিষয়, অ্যাপ দুটির সার্ভিস বন্ধ হবার সময় একই থাকলেও ডিভাইসের ক্ষেত্রে ভিন্ন কথা বলা হয়েছে। আনসার্টিফাইড ডিভাইস বলতে যে সকল ডিভাইসে গুগলের মোবাইল সার্ভিস ব্যবহার করার কোনো সার্টিফিকেশন নেই কিন্তু ডেভেলোপাররা কোডকে পরিবর্তন করে গুগলের মোবাইল সার্ভিস ব্যবহার করার উপযুক্ত করে এমন ডিভাইস।কিন্তু আনসাপোর্টেড র্ডিভাইস বলতে কি ঠিক বোঝানো সেটা বলা যাচ্ছে না। তবে xda developers এর মতে, আনসাপোর্টেড ডিভাইস বলতে যেসকল ডিভাইসে গুগলের মোবাইল সার্ভিস ব্যবহার করার পারমিশন নেই।

গুগল ম্যাসেজে মূলত  RCS End-to-End encryption চালু করার জন্য আনসার্টিফাইড ডিভাইসে এর সার্ভিসকে অফ করবে কিন্তু গুগল ডুও মোবাইল অ্যাপ ছাড়াও ওয়েবভার্সনেও ব্যবহার করা যায় যেখানে গুগলের মোবাইল সার্ভিসের কোনো দরকার হয়না। তাই গুগল ডুওকে কেনো অফ করা হচ্ছে সে বিষয়ে গুগল আশা করি খুব শীঘ্রই জানাবে।

কিন্তু আমরা বলতে পারি, আনসার্টিফাইড/ আনসাপোর্টেড ডিভাইস যেটাই হোক না কেন দুটোই হুয়াওয়ের জন্য প্রযোজ্য অর্থাং হুয়াওয়ে এবার গুগলের আরও দুটি সার্ভিস হারাতে চলেছে।


নিউজটি সম্পর্কে আপনার মতামত নিচে কমেন্ট করুন। বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করুন এবং সোশ্যাল প্লাটফর্মে আমাদের ফলো করুন। টেকজাহাজের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ 😊।

Source: xda-developers

সাগর মজুমদার
খুব ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক যন্ত্রপাতি খুটিয়ে দেখার শখ ছিল। এর জন্য অনেক বকাও খেয়েছি কিন্তু খুটিয়ে দেখার আনন্দের কাছে এটা কিছুই ছিল না। এভাবে আস্তে আস্তে টেকনোলজির সাথে খুব ভাল একটা সম্পর্ক গড়ে উঠে আর এই সম্পর্ক থেকে যা পেয়েছি, সেটা দিয়েই পূর্ণ করতে চলেছি টেকজাহাজকে। আশা করি আপনি আমার পাশে থাকবেন।